সম্পাদকীয়

রাজ্যে ফ্যাসিবাদী শক্তিকে হটাতে বাম-ধর্মনিরপেক্ষ শক্তির সদর্থক ভূমিকা কোথায়?

প্রবীর মজুমদার যখনই কোনও একক সংখ্যাগরিষ্ঠ সরকার নিজেদের সবকিছুর উর্ধ্বে ভাবতে শুরু করে, তখনই ভারতবাসী সেই সরকারি দলকে রীতিমতো শিক্ষা দিয়ে দেন। এইবারের নির্বাচন দেখিয়েছে, ‘অহমিকার পতন অনিবার্য’। এ কথা অনস্বীকার্য, কেন্দ্রের মতো এ রাজ্যেও বর্তমান পরিস্থিতি অনুসারে শাসক-বিরোধী কোনও সদর্থক শক্তির উঠে আসা প্রয়োজন ছিল। শাসক তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক লড়াইয়ের প্রয়োজনে যত না,… ...

শিক্ষক নিয়োগের অচলাবস্থায় এবারে বিহারেই বাংলার পরিযায়ী শিক্ষক

স্বপনকুমার মণ্ডল বছর চারেক আগে করোনাকালে সারা দেশজুড়ে লকডাউনের দুর্দশায় পরিযায়ী শ্রমিকদের নিদারুণ অস্তিত্ব-সংকট নিবিড় হয়ে ওঠে। তাঁদের পায়ে হেঁটে ঘরে ফেরার দুর্বিষহ দৃশ্য দেখে দেশবাসী শিউরে উঠেছিল। তখন বিস্ময়ের ঘোর লেগেছিল মনে। যেন করোনার করুণায় দেশের মানুষ দুর্দশার বাস্তব চিত্র আবিষ্কার করার অবকাশ পেল। সেখানে বিশেষ করে এই রাজ্যের শ্রমজীবী মানুষের সংখ্যা যে বিপুল… ...

বেশি জরুরি চাকরি পাওয়ার বিশ্বাসযোগ্যতাকে ফিরিয়ে আনা

যোগ্য চাকরিহারাদের পাশে দাঁড়ানো জরুরি স্বপনকুমার মণ্ডল: লোকসভা নির্বাচনের মধ্যেই ব্যাপক সংখ্যক চাকরি হারানোর বিষয়টি স্বাভাবিক ভাবেই রাজনৈতিক হাতিয়ার হয়ে উঠেছে৷ দুর্নীতির ইসু্যতে তা যেন সরকারবিরোধী টাটকা প্রমাণের সুবর্ণ সুযোগ এনে দিয়েছে৷ একের সর্বনাশ,অন্যের পৌষমাস মনে হলেও এরকম ভয়ঙ্কর পরিণতি কেউ প্রত্যাশা করেনি,ভাবতেই পারেনি৷ সেখানে স্কুল সার্ভিস কমিশনের ২০১৬-র প্যানেলের ২৫৭৫৩ জনের চাকরি চলে যাওয়ার খবরে… ...

সংখ্যালঘুরা ব্রাত্যই

এনডিএ জোটের নবগঠিত মন্ত্রিসভায় মহিলা প্রতিনিধির সংখ্যা কমল৷ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন সাতজন মহিলা৷ এঁদের মধ্যে দু’জন পূর্ণমন্ত্রী, বাকিরা রাষ্ট্রমন্ত্রী৷ এর আগের মন্ত্রিসভায় ছিলেন ১১ জন মহিলা মন্ত্রী৷ এবার পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন নির্মলা সীতারমন এবং অন্নপূর্ণা দেবী৷ রাজ্যসভার সদস্য নির্মলা আগে প্রতিরক্ষা এবং অর্থমন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন৷ অন্যদিকে, ঝাড়খণ্ড কোডার্মার দু’বারের সাংসদ অন্নপূর্ণা দেবী গত… ...

রাজনীতি আর পরিবেশ: দুই উত্তাপেই আক্রান্ত ছিলেন বাংলার মানুষ

বরুণ দাস অবশেষে সাতদফার লোকসভার নির্বাচন-পর্ব শেষ এবং মাননীয় নির্বাচকমণ্ডলীর কৌতূহল শেষে ফলাফলও প্রকাশিত৷ এবার কেন্দ্রে নতুন সরকার গঠনের প্রস্ত্ততি৷ একদিকে বিজয়ী দলের আনন্দ-উল্লাস তো অন্যদিকে পরাজিত পক্ষের নিরানন্দ-হতাশার মধ্য দিয়েই পথচলা শুরু হতে চলেছে অষ্টাদশ লোকসভার৷ যে চলার মধ্যে হয়তো নতুনত্বের স্বাদ পাবেন না দেশের মানুষ৷ কারণ নির্বাচনের আগে অনেক গালভরা প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও… ...

ভারতের নির্বাচন পুরো দক্ষিণ এশিয়ার জন্য ইতিবাচক জায়গা তৈরি করেছে

বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমের প্রতিক্রিয়া বাসুদেব ধর ‘ভারতে গণতন্ত্রের চর্চা বলিষ্ঠ হলে তা দক্ষিণ এশিয়ার গণতন্ত্রকামী মানুষের জন্য প্রেরণাদায়ক শক্তি হিসেবে বিবেচিত হয়৷ …অষ্টাদশ লোকসভা নির্বাচন ভারতের ও পুরো দক্ষিণ এশিয়ার জন্য ইতিবাচক জায়গা তৈরির সুযোগ করে দিয়েছে৷’ ‘ভারত ধারাবাহিকভাবে গণতন্ত্রের চর্চা করছে৷ এর বিপরীতে যখন যে শক্তি এসেছে, তাকে সুযোগমতো বার্তা দিয়েছে৷ এবারও তারা সে… ...

জোট প্রধানমন্ত্রী

তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন নরেন্দ্র মোদি৷ নবগঠিত সরকার মোটেই মোদি সরকার নয়, জোট শরিকদের সরকার বলে মন্তব্য করেছে বিরোধীরা৷ কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এনডিএ’কে তির্যকভাবে বলা হয়েছে, ‘নরেন্দ্র ডেস্ট্রাকটিভ অ্যালায়েন্স’৷ বাংলায় তর্জমা করলে দাঁড়ায় মোদি হলেন ‘নরেন্দ্র ধ্বংসাত্মক জোট’-এর নেতা৷ একই সঙ্গে ‘নেতৃত্ব দেওয়ার যাবতীয় বৈধতা হারিয়েও প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিচ্ছেন মোদি’ বলেও মন্তব্য করেছে… ...

জোট ধর্ম পালন এখন মোদির পরীক্ষা

– প্রবীর মজুমদার ‘জোট ধর্ম’— ভারতের রাজনীতিতে এই কথাটি বিজেপি-র প্রয়াত নেতা ও প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর। কিন্তু নরেন্দ্র মোদিকে কখনও জোটসঙ্গীদের উপর ভরসা করতে হয়নি। ফলে কাউকে সন্তুষ্ট করারও দরকার পড়েনি। রবিবার নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রিসভার শপথ গ্রহণের সঙ্গে সঙ্গে ভারতে ফিরে এল জোট সরকার। এবার অটল বিহারী বাজপেয়ীর রাজনৈতিক উত্তরাধিকারী নরেন্দ্র মোদিকে প্রথমবারের… ...

এবারের ভোটের ফলে সব হিসেব বেহাল

অভিজিৎ রায় অবশেষে দেশের অষ্টাদশ লোকসভা নির্বাচন শেষ হল৷ মঙ্গলবার ভোটগণনার পর স্পষ্ট হয়েছে জনতার রায়৷ ভারতীয় জনতা পার্টি এবার আর একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি৷ এমনকী, ৩০০ আসনের গণ্ডিও টপকাতে পারেনি৷ অবশ্য এনডিএ জোট কোনওমতে ম্যাজিক ফিগার পেরোতে পেরেছে৷ অন্যদিকে, কার্যত এনডিএ-র ঘাডে় নিঃশ্বাস ফেলেছে ইন্ডিয়া জোট৷ আসলে এবারের সাধারণ নির্বাচনের সময় দল ও বিরোধী জোটের… ...

মেক্সিকোর প্রথম মহিলা প্রেসিডেন্ট বামপন্থী ক্লডিয়া

ড. কুমারেশ চক্রবর্তী মেক্সিকো প্রজাতন্ত্রের ২০০ বছরের ইতিহাসে এক নতুন নজির গড়লেন ক্লডিয়া সেনবাগ(৬১)! তিনিই প্রথম মহিলা যিনি মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন যা গত ২০০ বছরের ইতিহাসে আর কখনো দেখা যায়নি৷ এবারে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২ জুন ২০২৪৷ এই প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আরও একটি নেতিবাচক রেকর্ড তৈরি হলো৷ নির্বাচনী হিংসায় ৩৮ জন ভোট প্রার্থী… ...