Tag: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মােদি

‘কাজহারা সাড়ে তিন কোটি, প্রধানমন্ত্রীর কাছে জবাব চায় দেশ’, তােপ অমিত মিত্রের

বেকারত্ব নিয়ে ফের প্রধানমন্ত্রীকে তুলােধােনা করলেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র।তাঁর কথায়,দেশের অর্থনীতির শােচনীয় অবস্থা বাড়ছে বেকারত্ব।

অকল্পনীয় উন্নতি করেছে দেশ, দাবি মােদির

দেশের সরকারি স্কুলগুলির শিক্ষার মান বাড়ানাে দরকার।বেসরকারি ক্ষেত্রকেও এগিয়ে আসতে হবে।শিক্ষক পর্বের সূচনার পর জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মােদি।

উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন করল মােদি

আফগানিস্তানের পরিস্থিতির দিকে বিশেষ নজর রাখতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মােদি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন করল। এই কমিটিতে রয়েছেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

ঘানি-সিআইএ প্রধান গােপন বৈঠক আফগান পরিস্থিতি নিয়ে পুতিনের সঙ্গে কথা বললেন মােদি

চলতি আফগান পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মােদি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সাথে টানা ৪৫ মিনিট কথা বলেছেন। তা নিজেই টুইট করে জানালেন প্রধানমন্ত্রী।

ধর্মকেন্দ্রিক পর্যটনকে মজবুত করে তুলতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

গুজরাতের সােমনাথে প্রধানমন্ত্রী মােদি গুজরাতের আজ একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। পাশাপাশি, একটি মন্দিরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।

মাতঙ্গিনী হাজরা অসমের! মােদির মন্তব্যে সমালােচনার ঝড়

টুইটে ক্ষোভ উগরে দেন তৃণমূল নেতা কুণাল ঘােষ লেখেন, “মাতঙ্গিনী হাজরা অসমের? আপনি কি পাগল হয়ে গিয়েছেন? আপনি ইতিহাস সম্পর্কে কিছু জানেন না।

যানবাহন বাতিল নীতি চালুতে আত্মবিশ্বাসী মােদি

আগামী ২৫ বছরে অনেক বদলাবে দেশ। নয়া নীতি নিয়ে আত্মবিশ্বাসী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মােদী। আগামী ২৫ বছর দেশের কাছে খুবই গুরত্বপূর্ণ বলে দাবি প্রধানমন্ত্রীর।

সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বাংলার রাজ্যপাল

মঙ্গলবার দিল্লিতে পৌঁছনাের পর বুধবার দুপুরে সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মােদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

মন্ত্রীদের নিয়ে ৩ দিনের সভায় লক্ষ্যমাত্রা বাঁধবেন প্রধানমন্ত্রী

২০১৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত যেভাবে বিরােধিতা শুন্য হয়ে দেশ চালিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মােদী। ২০১৯ সালের পর দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রীত্বে তা হচ্ছেনা।

বিদ্যুৎ আইন সংশােধনের বিরােধিতায় রাজ্য মােদিকে চিঠি মমতার

রাজ্যগুলিকে অন্ধকারে রেখে কেন্দ্রীয় সরকার ফের বিদ্যুৎ আইন বদল করছে।এই আশঙ্কার কথা নরেন্দ্র মােদিকে চিঠি লিখে জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।