ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় ৫৬০ টি অভিযোগ এসেছে, হয়েছে ১০৭ টি এফআইআর, হাইকোর্টে রাজ্য

Written by SNS June 19, 2024 5:20 am

মোল্লা জসিমউদ্দিন:  মঙ্গলবার কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে লোকসভা ভোট পরবর্তী ‘হিংসা’ মামলায় রিপোর্ট জমা দিল রাজ্য। এখনও পর্যন্ত কতকগুলি এফআইআর দায়ের হয়েছে?  এবং কী কী পদক্ষেপ করা হয়েছে?  তা নিয়ে রিপোর্ট জমা দিয়েছেন রাজ্য পুলিশের ডিজি সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়। একটি সংগঠন এবং রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী ভোট পরবর্তী ‘হিংসা’ নিয়ে মামলা করেছেন  কলকাতা হাইকোর্টে।লোকসভা ভোট মিটতেই একের পর এক অশান্তি, হিংসার অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে । ভোট পরবর্তী অশান্তি নিয়ে এবার কলকাতা হাইকোর্টে রিপোর্ট দিল রাজ্য। কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি কৌশিক চন্দের ডিভিশন বেঞ্চ গত ৬ জুন একটি নির্দেশ দিয়েছে । তারই পরিপ্রেক্ষিতে রিপোর্ট দিল রাজ্য।

গত ৬ জুন কলকাতা হাইকোর্ট নির্দেশ দেয় রাজ্যের ডিজিকে ইমেইল করে অভিযোগ জানাতে পারবেন ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসে আক্রান্ত ব্যক্তিরা।অভিযোগ খতিয়ে দেখে এফআইআর দায়ের করার নির্দেশ দেয় ডিভিশন বেঞ্চ । গত ৬ জুন থেকে ১২ জুন পর্যন্ত রাজ্যের ডিজির ইমেল আইডিতে ৫৬০ টি অভিযোগ জমা পড়েছে। জমা পড়া অভিযোগের মধ্যে থেকে ১০৭টি এফআইআর দায়ের হয়েছে। ৯২টি অভিযোগের ক্ষেত্রে ধর্তব্যযোগ্য অপরাধ পাওয়া যায়নি। ১১৪টি ক্ষেত্রে অনুসন্ধান করে কোনও অপরাধ খুঁজে পাওয়া যায়নি। ১৮টি অভিযোগ ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত নয়।ব্যারাকপুর, দেগঙ্গা এবং ক্যানিং এলাকায় অভিযোগ তুলনামূলক ভাবে বেশি।৮৮টি অভিযোগ একই ঘটনার ক্ষেত্রে দ্বিতীয়বার দায়ের করা হয়েছে। ৩টি অভিযোগের ক্ষেত্রে অভিযোগকারীর কোনও ঠিকানা নেই বলে সূত্রে প্রকাশ ।

১৩৮টি অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। খতিয়ে দেখার কাজ সম্পূর্ণ হলে আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ করা হবে। লোকসভা ভোট মিটতেই রাজ্যের জেলায় জেলায় হিংসার ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সেইসব ঘটনা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে রিপোর্ট জমা দিল রাজ্য সরকার। মঙ্গলবার বিচারপতি কৌশিক চন্দের ডিভিশন বেঞ্চে একাধিক বিষয়ে নিয়ে রিপোর্ট দিয়েছেন রাজ্যের আইনজীবী।গত ৬ জুন থেকে ১২ জুন পর্যন্ত রাজ্যের ডিজির ই-মেল আইডিতে ৫৬০টি অভিযোগ জমা পড়েছে। ওই অভিযোগের মধ্যে থেকে ১০৭ টি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। ৯২টি অভিযোগের কোনও ভিত্তি পাওয়া যায়নি। ১১৪টি-র ক্ষেত্রে অনুসন্ধান করে কোনও অপরাধের সন্ধান মেলেনি। ১৮টি অভিযোগ ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত নয়। ৮৮টি অভিযোগ একই ঘটনার ক্ষেত্রে দ্বিতীয়বার দায়ের করা হয়েছে। ৩টি অভিযোগের ক্ষেত্রে অভিযোগকারীর কোনও ঠিকানা নেই।

১৩৮টি অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। খতিয়ে দেখার কাজ সম্পূর্ণ হলে আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ করা হবে বলে রিপোর্টে জানিয়েছে রাজ্য।এদিন এই মামলায় সব পক্ষ হাজির না থাকায় শুনানি হয়নি।আগামী বৃহস্পতিবার এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে বলে জানা গেছে। অপরদিকে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডনের ডিভিশন বেঞ্চে কেন্দ্রের আইনজীবী জানিয়েছেন – ‘ রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন বৃদ্ধি হলে তাদের কোন আপত্তি নেই’। বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসার  একাধিক অভিযোগ উঠেছে। শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে কলকাতা হাইকোর্টের  দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি। কলকাতা হাইকোর্ট আগেই জানিয়েছে যে, ২১ জুন পর্যন্ত রাজ্যে থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। তবে এখন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে হাইকোর্টে জানানো হল, -‘রাজ্যে বাহিনী মোতায়েনের মেয়াদ বাড়ানো হলে তাঁদের কোনও আপত্তি নেই’।