ব্রিজ ভূষণের ছেলের কনভয় পিষে দিল ৩ জনকে , মৃত ২

Written by SNS May 29, 2024 7:05 pm

লখনউ, ২৯ মে – যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত ব্রিজ ভূষণ শরণ সিংয়ের ছেলে তথা কাইসারগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী করণ ভূষণ সিংয়ের কনভয় পিষে দিল দুই কিশোরকে। সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, মৃতদের মধ্যে রয়েছে ১৭ বছরের এক নাবালক৷ অন্য জনের বয়স ২০ বছর৷ এই দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হন ৬০ বছরের এক বৃদ্ধা। তিনি হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন৷ কনভয়ের যে গাড়িতে দুর্ঘটনা ঘটে, তার চালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷

উত্তরপ্রদেশের গোন্ডার বৈকুণ্ঠ ডিগ্রি কলেজের কাছে কর্নেলগঞ্জ-হুজুরপুর রাস্তায় দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে ঘাতক গাড়ির চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন৷ একটি স্কুলের সামনে বাইকে সওয়ার ১৭ বছরের রেহান খান এবং বছর ২০-র শেহজাদ খানকে ধাক্কা মারে৷ ঘটনাস্থলেই ২ জনই প্রাণ হারান৷ সেই সময়  রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন সীতা দেবী নামে ৬০ বছরের এক বৃদ্ধা। তাঁকেও ধাক্কা মারে করণ ভূষণ সিংয়ের কনভয় ৷ গোন্ডা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাধে শ্যাম রাই জানিয়েছেন, কাইসারগঞ্জের বিজেপি প্রার্থীর কনভয়ের গাড়ির ধাক্কায় প্রাণহানির ঘটনায় চালক লবকুশ শ্রীবাস্তবকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷   
 

এই ঘটনার ভিত্তিতে কর্নেলগঞ্জ থানায় ইতিমধ্যেই একটি মামলা রুজু হয়েছে। দুর্ঘটনার সময় করণভূষণ ওই কনভয়ে উপস্থিত ছিলেন কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যদিও পুলিশ এই বিষয়ে এখনও মুখ খোলেনি। প্রাথমিক রিপোর্টেও করণভূষণের নামের উল্লেখ নেই বলে খবর।

পুলিশের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, যে গাড়িটি ওই তিন জনকে ধাক্কা মেরেছে সেটি করণ ভূষণ সিংয়ের কনভয় ছিল বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা৷ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, ঘটনার পর আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার বদলে চালক গাড়িটিকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় ৷ এমনকি কাইসারগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী নিজের গাড়ি থেকেও নামেননি বলে অভিযোগ করেছে প্রত্যক্ষদর্শীরা ৷

এই ঘটনার জেরে স্থানীয় এবং মৃতদের পরিবার রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করে ৷  অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে দীর্ঘক্ষণ রাস্তা অবরোধ করে রাখা হয় ৷ স্থানীয় কেরনালগঞ্জ থানার পুলিশ এবং অন্যান্য উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে যান ৷ তাঁরা অভিযুক্তদের গ্রেফতারির আশ্বাস দিলে তারপর অবরোধ ওঠে ৷ তবে, পুলিশ এই ঘটনায় ঘাতক গাড়ির চালককে গ্রেফতার করে, তার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে ৷ উল্লেখ্য, ব্রিজ ভূষণ শরণ সিং-কে এই নির্বাচনে কাইসারগঞ্জ থেকে প্রার্থী করেনি বিজেপি৷ ব্রিজ ভূষণের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা থাকায় বিতর্ক এড়াতেই তাঁকে টিকিট না দিয়ে ছেলে করণকে  প্রার্থী করে বিজেপি ৷

পুলিশ সূত্রে খবর   কনভয়ে থাকা এসইউভি গাড়িটির পিছনের কাচে ‘পুলিশ এসকর্ট’ বলে লেখা ছিল। যাতে আপাতদৃষ্টিতে মনে হয় এটা কোনও ভিআইপির কনভয়। কিন্তু, কোনও কনভয়েই পুলিশ এসকর্ট লেখা এরকম বহুমূল্যের গাড়ি থাকে না। তাছাড়া কোনও লোকসভা প্রার্থী সেই মর্যাদা পেতেও পারেন না।

অভিযোগকারী চান্দা বেগম এফআইআরে লিখেছেন, এদিন সকাল ৯টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। একটি বাইকে মহিলার ছেলে ১৭ বছরের রেহান এবং ২০ বছরের ভাগ্নে শাহজাদ ওষুধ কিনতে বেরিয়েছিল। সেই সময় বেপরোয়া গতিতে ওই কনভয় ছুটে আসে। একেবারে মুখোমুখি ধাক্কা মারে বাইককে। দুজনেরই ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয়।

 
ব্রিজভূষণের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠেছিল। দীর্ঘ সময় ধরে ভারতীয় কুস্তি ফেডারেশনের সভাপতি ছিলেন ব্রিজভূষণ। গত বছর তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলে পথে নামেন বজরঙ্গ পুনিয়া, বিনেশ ফোগত, সাক্ষী মালিকের মতো কুস্তিগিরেরা। তার পর থেকেই জল্পনা তৈরি হয় যে, ব্রিজভূষণকে কি আদৌ প্রার্থী করা হবে? শেষ পর্যন্ত লোকসভা ভোটে বিজেপির প্রার্থিতালিকা থেকে বাদ পড়ে তাঁর নাম। প্রার্থী করা হয় তাঁর পুত্রকে কনভয়ের গাড়িতে চাপা পড়ে দুই কিশোরের মৃত্যুর কারণে এ বার বিতর্কে জড়ালেন তাঁর পুত্রও।