মহারাষ্ট্রে স্পিকার পদে কংগ্রেস, এনসিপি’র ঝোলায় গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকের ভিড়

পুরােনাে ঐতিহ্য মেনে আজ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কংগ্রেসের নানা পাটোলেকে মহারাষ্ট্র বিধানসভার স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত করা হল।

Written by SNS Mumbai | December 2, 2019 11:21 am

কংগ্রেসের নানা পাটোলেকে মহারাষ্ট্র বিধানসভার স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত করা হল। (Photo: IANS)

পুরােনাে ঐতিহ্য মেনে আজ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কংগ্রেসের নানা পাটোলেকে মহারাষ্ট্র বিধানসভার স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত করা হল। পাশাপাশি ফড়নবিশকে বিরােধী দলনেতা হিসেবেও নির্বাচিত করা হয়। শিবসেনা-কংগ্রেস-এনসিপি জোটের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে তার পূর্বসূরী ফড়নবিশকে বিরােধী দলনেতা হিসেবে নির্বাচিত করে শুভেচ্ছা জানান। বিরােধী দলনেতা ফড়নবিশ বলেন, মহারাষ্ট্রের জনগণ আমাদেরকে জনাদেশ দিয়েছিল। বিজেপি লক্ষণীয়ভাবে ৭০ শতাংশ ভােট পেয়েও রাজনৈতিক সমীকরণে শিকার হয়ে সরকার গঠন করতে পারল না। অথচ যারা ৪০ শতাংশের মতাে ভােট পেয়েছে তারা সরকার গঠন করল। গণতন্ত্রকে সম্মান জানিয়ে আমরা মেনে নিয়েছি’।

তিনি বলেন, বিজেপি ১০৫টি আসনে জয় লাভ করে সর্বোচ্চ দল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হলেও শিবসেনার কারণে সরকার গঠনে ব্যর্থ হয়েছে। শিবসেনা মুখ্যমন্ত্রী পদের সমানাধিকারের দাবিতে অনড় ছিল। বিধানসভায় ফড়নবিশের প্রাক নির্বাচন প্রতিশ্রুতি নিয়ে সরকার পক্ষের সদস্যরা কটাক্ষ করলে তিনি বলেন, ‘আমি বলেছিলাম আমি ফিরব, কিন্তু আপনাদেরকে সময় তালিকা দিতে ভুলে গেছিলাম। তবে নিশ্চিত করে বলতে পারি একটু অপেক্ষা করুন, ফিরব। আমি একাধিক প্রকল্পের শিলান্যাস করে বসে থাকিনি, পাঁচ বছরে সবকটি প্রকল্পের কাজও শুরু করে দিয়েছিলাম। আপনারা হয়তাে জানতেও পারবেন না, ওই প্রকল্পগুলাের উদ্বোধনও হয়তাে আমিই করব’।

মন্ত্রক বন্টনের প্রশ্নে স্বভাবতই গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকগুলাের দিকে তাকিয়ে জোটের তিন শরিক দল-স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক নগরােন্নয়ন মন্ত্রক, রাজস্ব দফতর ও আবাসন মন্ত্রক সহ গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকগুলাের দিকে তাকিয়ে শিবসেনা-কংগ্রেস-এনসিপি। মন্ত্রিসভার ৪৩টি মন্ত্রক শিবসেনা, কংগ্রেস ও এনসিপি’র মন্ত্রীদের মধ্যে বন্টন করা হবে। তবে কোন দলের ঝুলিতে কোন মন্ত্রক যাবে তা এখন দেখার।

মনে করা হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের মন্ত্রিসভায় এনসিপি হয়তাে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রক পেতে চলেছে। ৪৩টি মন্ত্রকের মধ্যে ১৬টি মন্ত্রক পেতে চলেছে এনসিপি। লক্ষণীয়, শিবসেনার তুলনায় কম সংখ্যক বিধায়ক থাকার পরও গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি মন্ত্রক সহ ষোলােটি মন্ত্রক দেওয়া হবে। পাশাপাশি শিবসেনা ১৫টি ও কংগ্রেস ১২টি মন্ত্রক পাবে। কংগ্রেসকে যেহেতু স্পিকার পদটি দেওয়া হয়েছে, তাই এনসিপি’কে অতিরিক্ত মন্ত্রক দেওয়া হবে।

এখনও খুব স্পষ্ট করে জানা না গেলেও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকটি এনসিপি’র ঝুলিতে যেতে পারে। শরদ পাওয়ারের ঘনিষ্ঠ জয়ন্ত পাটিল মহারাষ্ট্রের নতুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হবেন। কংগ্রেস-এনসিপি জোট প্রশাসনের আমলে জয়ন্ত পাটিল খুব অল্প সময়ের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন। শিবাজি পার্কে তিনি ও ছগন ভুজবল মন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছিলেন। পাশাপাশি উপ মুখ্যমন্ত্রী পদে অজিত পাওয়ারকে বসানাে হবে। তিনি বলেন, ‘এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। দল সিদ্ধান্ত নেবে’।

কংগ্রেস সম্ভবত রাজস্ব দফতর পেতে চলেছে। কংগ্রেস নেতা বালাসাহেব থােরাট, অশােক চহ্বাণও ওই দিন শপথ গ্রহণ করেছেন। শিবসেনা মন্ত্রীকে নগরােন্নয় দফতর দেওয়া হবে। শিবসেনা নেতা একনাথ শিন্ডে ও সুভাষ দেশাই শপথ গ্রহণ করেছেন।