রাজ্যপালের বিরুদ্ধে অবিজেপি মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে বৈঠকের প্রস্তুতি মমতার

রাজ্যপালের ভূমিকা নিয়ে অবিজেপি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। বিজেপি-বিরোধী মুখ্যমন্ত্রীরা তাতে সাড়া দিয়েছেন।

Written by SNS Kolkata | February 18, 2022 9:44 pm

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Photo: IANS)

রাজ্যপালের ভূমিকা নিয়ে অবিজেপি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই বিজেপি-বিরোধী মুখ্যমন্ত্রীরা তাতে সাড়া দিয়েছেন। সেই বৈঠক নিয়ে এবার মুখ খুললেন মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী নবাব মালিক।

তিনি জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিরোধী দলের মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে যে বৈঠকের প্রস্তাব দিয়েছেন তা মার্চ মাসের ১০ তারিখের পর হবে। অবিজেপি রাজ্যগুলিতে রাজ্যপালদের ভূমিকা নিয়ে সমস্যা তৈরি হচ্ছে বলে অভিযোগ।

ইতিমধ্যেই সংসদে এই নিয়ে সোচ্চার হতে দেখা গিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস, কংগ্রেস, ডিএমকে-সহ অন্যান্যদের। বাংলায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের ভূমিকা নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে রাজ্যসভায় স্বতন্ত্র প্রস্তাব আনা হয়েছে।

রাজ্যপাল পদ থেকে ধনকড়ের অপসারণ দাবি করা হয়েছে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে। তামিলনাড়ুর রাজ্যপালের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে সেরাজ্যের শাসক দল ডিএমকেও।

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকেও রাজ্যপালের কাছে বিভিন্ন ভাবে বাধাপ্রাপ্ত হতে হয়েছে। দিন দুই আগেই রাজ্যপালদের ভূমিকা নিয়ে অ-বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীদের একটি বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছেন এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি এই ব্যাপারে ফোনে কথা বলেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিনের সঙ্গে। ডিএমকে সুপ্রিমো মমতার আহ্বানে সাড়া দিয়ে জানিয়ে দেন, খুব শীঘ্রই দিল্লির বাইরে তাঁরা বৈঠক করবেন তবে, কংগ্রেস সেই বৈঠকে থাকবে কিনা স্পষ্ট করেননি তিনি।

বুধবার নবাব মালিক সংবাদ সংস্থাকে বলেন, ‘বিজেপি যেভাবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার অপব্যবহার করছে তা রুখতে মহা বিকাশ আঘাড়ির তিন দলই আগামিদিনে বৈঠকে বসবে।

তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কেসিআর জানিয়েছেন, তিনি উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে দেখা করবেন। স্ট্যালিনও জানিয়েছেন তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করবেন।

অবিজেপি শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা ১০ মার্চের পর একসঙ্গে দেখা করবেন।’ ইতিমধ্যেই সংসদে এই নিয়ে সোচ্চার হতে দেখা গিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস, কংগ্রেস, ডিএমকে-সহ অন্যান্যদের।

বাংলায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের ভূমিকা নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে রাজ্যসভায় স্বতন্ত্র প্রস্তাব আনা হয়েছে। রাজ্যপাল পদ থেকে ধনকড়ের অপসারণ দাবি করা হয়েছে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে।