Home ভারত ইভিএম বিতর্ক জিইয়ে রেখেই শেষ হল ত্রিপুরার ভোট

ইভিএম বিতর্ক জিইয়ে রেখেই শেষ হল ত্রিপুরার ভোট

58
0
SHARE
ইভিএম বিতর্ক জিইয়ে রেখেই শেষ হল ত্রিপুরার ভোট

নিজস্ব প্রতিনিধি- ইভিএম বিতর্ক জিইয়ে রেখেই ত্রিপুরায় ভোট পড়ল ৭৫ শতাংশ। রাত পর্যন্ত লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে ভোট দিলেন ত্রিপুরাবাসী। অবাধ ও শান্তিপূর্ণ ভোটে জয়ের স্বপ্ন দেখছেন বাম ও রাম উভয়ই।

ভোট দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বলেন, তৈরি হবে অষ্টম বামফ্রন্ট সরকার। অন্যদিকে বিজেপি নেতাদের দাবি চলো পাল্টাই স্লোগানের প্রতিফলন হবে ইভিএম-এ। এখন দেখার ত্রিপুরাবাসীর রায় যায় কোনদিকে।

তবে নির্বাচনী বিশেষজ্ঞদের মতে ৬৫-৭০ শতাংশ ভোট পড়লে তা সাধারণত প্রতিষ্ঠান বিরোধীদের দিকে যায়। এবারে ত্রিপুরাতে ভোটের হার অন্যান্য বারের চেয়ে বেশির দিকেই। আর তাতেই বিজেপি নিজের জয়ে আত্মবিশাসী হচ্ছে।

তবে অন্যান্য বিতর্ক ছাড়িয়ে ত্রিপুরা ভোটের সবছেয়ে বড় বিতর্ক ছিল ইভিএম বিতর্ক। কারণ ভোটের আগে বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য সভায় বারবারই শোনা গিয়েছে, সে চিহ্নেই ভোট দেওয়া হোক না কেন, তা গিয়ে পড়বে পদ্মে।

এই বিতর্ক বাড়িয়ে দিয়েছিল ত্রিপুরার রাজ্য বিজেপি সভাপতি বিপ্লব দেব। তিনি তেলিয়ামুড়ির এক জনসভা থেকে বলেন, ‘কার ভোট কোথায় পড়বে তা শুধু মোদিজি জানেন আর আমি জানি’।

এরপরেই সিপিএমের পক্ষ থেকে ভিডিও ফুটেজ দিয়ে অভিযোগ জানান হয়। এই বিতর্ক যেতে না যেতেই ভোটের আগে একটি ইভিএম মেশিন পরীক্ষার সময় দেখা যায়, যে কোনও বোতাম টিপলেই ভোট গিয়ে পড়ছে একটি নির্দিষ্ট জায়গায়।

পরিস্থিতি সামাল দিতে নির্বাচন কমিশনের তরফে ১৮৪ জন ইঞ্জিনিয়ারের একটি টিম নামানো হয়। আর সেই বিতর্ক জিইয়ে রেখেই ভোটের দিন সকাল থেকে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে আসে ইভিএম।

অনেক বুথে দুপুর একটা পর্যন্ত ভোট গ্রহন প্রক্রিয়া শুরু করা যায়নি। এমনকি হেভিওয়েট কেন্দ্রে, যেখানে মানিক সরকার ভোট দেন, সেখানেও ইভিএম বিভ্রাটের ঘটনা ঘটে।

এই বিষয়ে কেন্দ্রের ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে বিজেপি এধরনের বিভ্রাট ঘটাচ্ছে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে কংগ্রেস ও সিপিএম। যদিও নির্বাচন কমিশনের তরফে এই অভিযোগকে কোনও গুরুত্ব দেওয়া হয়নি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এদিন ত্রিপুরার ভোটারদের ভাই-বোন সম্বোধন করে ট্যুইট করেন, ‘ত্রিপুরার ভেই-বোনদের আমি অনুরোধ করছি, বিশেষ করে যুব সম্প্রদায়কে, রেকর্ড সংখ্যায় ভোট দিন’।