Home বঙ্গ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও সঙ্ক্রমণের কারণ এখনও রহস্য

আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লেও সঙ্ক্রমণের কারণ এখনও রহস্য

129
0
SHARE
জল থেকেই সংক্রমণ জানালেন মেয়র

নিজস্ব প্রতিনিধি- ঘনাচ্ছে রহস্য, সমাধানে এখনও অক্ষম কলকাতা পুরসভা। কিনারার জন্য তবে কি প্রয়োজন কিরীটি বা ফেলুদা’র?

দক্ষিণ কলকাতায় জলবাহিত রোগে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। একই সঙ্গে ছড়াচ্ছে আতঙ্কও। কিন্তু ‘আন্ত্রিক আতঙ্কের’ কারণ কি? জবাব পাওয়া গেলনা ৮২টি পরীক্ষার পরও।

কলকাতা পুরসভার ৬টি ওয়ার্ডে অসুস্থ বহু মানুষ। কেউ ভুগছেন পেটের সমস্যায়, কী বা আন্ত্রিক বা ডায়ারিয়ার মত রোগে। চিকিৎসার জন্য সাধারণ মানুষ ছুটে আসছেন হাতের পাঁচ বাঘাযতীন টেস্ট জেনারেল হাসপাতালে।

কিন্তু ১০১, ১০২, ১০৩, ১০৭, ১০৯, ১১০ ওয়ার্ড গুলিতে কেন অসুস্থ হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ তা এখনও পর্যন্ত ঠাহর করতে পারছেনা কলকাতা পুরসভা।

অবশ্য চেষ্টার কোন ত্রুটি যে পর কর্তৃপক্ষ করেননি এমনটাই আশ্বাস দিচ্ছেন পুর আধিকারিক থেকে মেয়র স্বয়ং। আক্রান্তদের দেখতে শনিবার থেকে রবিবার দুপুর পর্যন্ত তিনবার চক্কর কেটেছেন মেয়র।

রবিবার বেলা ১১টা নাগাদ হাসপাতালে দেখতে আসেন অসুস্থদের। সেখানেই তিনি জানান, প্রায় ৮২টি জায়গা থেকে জলের নমুনা নিয়ে পরীক্ষা করা হয়েছে। কিন্তু জলে কোনও সমস্যা পাওয়া যায়নি।

এই এলাকাগুইতে ধাপার জয়হিন্দ প্রকল্প থেকে জল সরবরাহ করা হয়। কিন্তু জলে জীবাণু নেই এই উক্তি শোনা গেল আধিকারিকদের পক্ষ থেকেও।

বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে ডিজি বিভাস মাইতি জানান, বহু পরীক্ষা করা হয়েছে,। এখনও পরীক্ষা অব্যাহত। কিন্তু পুরসভার সরবরাহিত জলে জীবাণু তো দূরে থাক দুর্গন্ধও পাওয়া যায়নি। পরীক্ষা করা হয়েছে জলে ব্যবহৃত ক্লোরিনের পরিমাণও। পুরসভার জল সুরক্ষিত এমনটাই দাবি সরকারি তরফে।